স্বদেশ
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ ৫ কার্ত্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ধর্ষণ করেছে টেইলারিং মাস্টার, জেল খাটছে স্কুলের বৃদ্ধ মাস্টার

ওয়ান নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৪, ২০২০ , ৫:৪৮ অপরাহ্ন
ধর্ষণ করেছে টেইলারিং মাস্টার, জেল খাটছে স্কুলের বৃদ্ধ মাস্টার

ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস। ধর্ষণ করেছে রুহুল আমিন ওরফে মাস্টার (টেইলারিং মাস্টার)কিন্তু জেল খাটছে ৭০ বছর বয়সি হার্টের রোগী জনাব আবদুল হক মাস্টার (অবঃ)।

এটা কোন নাটক বা সিনেমার গল্প নয়। এই ঘটনাটি ঘটেছে সেনবাগ থানার ৮ নং বিজবাগ ইউনিয়নের কাজিরখিল গ্রামে।

দুঃখজনক হলেও সত্য যে প্রশাসনের অসাবধানতার কারণে এজাহারে মূল আসামি রুহুল আমীন মাস্টারের নাম পর্যন্ত আসেনি। চীফ জুডিশিয়ারি ম্যাজিষ্টেট কাছে দেয়া প্রধান আসামি দিদারের ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে রয়েছে তেলেসমাতি কারবার!

মাস্টার মাস্টার ঘটলো বিপত্তি। প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বুঝা উচিৎ ছিলো সব মাস্টার, মাস্টার হয় না। জটিল বিষয় যেহেতু সেক্ষেত্রে আসামি করা ও গ্রেফতার করার আগে তদন্ত করা জরুরি ছিলো। জনাব আবদুল হক মাস্টার (অবঃ) শালিসে ছিলেন। সাধারণত গ্রামে শালিসী বৈঠকে অনেক মানুষই থাকে। প্রধান আসামি দিদারের ধর্ষক রুহুল আমীন মাস্টারের নামটি পুরো না জানার কারণে এমন অপ্রত্যাশিত ঘটনাটি ঘটে।

কি হচ্ছে এসব? অনেকে ধারণা করছে এটা ভাগ্যের নির্মম পরিহাস নাকি অন্যকিছু?
সব কিছু উন্মোচন হয়ে সত্য ঘটনা বেরিয়ে আসুক সবার এটাই প্রত্যাশা।
মনে রাখা ভালো সত্য গোপন থাকেনা এখন ১৯৮০ নয় এখন ২০২০….. এলাকাবাসী জানতে চায়
রুহুল আমীন মাষ্টার, সেলিম, গফুর,আলমগীর আজো কেন গ্রেফতার হচ্ছেনা।

এদেরকে অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে বয়োবৃদ্ধ এলাকার সন্মানিত ব্যাক্তি জনাব আবদুল হক মাষ্টারকে ছেড়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে এলাকাবাসী।

  • 57
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    57
    Shares
  •  
    57
    Shares
  • 57
  •  
  •  
  •  
  •